Breaking News
Home / জাতীয় / গাইবান্ধায় পৌর আ’লীগের সম্মেলনস্থল ভাংচুর : গণমাধ্যমকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ 

গাইবান্ধায় পৌর আ’লীগের সম্মেলনস্থল ভাংচুর : গণমাধ্যমকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ 

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃমহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) ও  মা হযরত আয়েশা (রা) কে কটূক্তির প্রতিবাদে গাইবান্ধায় ১০ জুন শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর ইমাম ওলামা পরিষদের ব্যানারে বড় মসজিদ থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। এ মিছিলটি ভারতীয় পণ্য বয়কট, বিজেপি নেত্রী নুপুর শর্মার শাস্তিসহ নানা শ্লোগান দিয়ে জেলা শহর প্রদক্ষিন শেষে শহরের কাচারী বাজার মসজিদ এ ফিরে সমাবেশ করে। ওই সমাবেশ শুরুর পর সেখান থেকে হঠাৎ করেই কিছু তরুণ লাঠিসোটা নিয়ে শহীদ মিনার চত্বরে পূর্ব নির্ধারিত গাইবান্ধা পৌর আওয়ামী লীগের সম্মেলনস্থলে হামলা ও ভাংচুর চালায়। এ ঘটনায় ২০ জনকে আটক করেছে পুলিশ। জুম্মার নামাজের কারণে সম্মেলনস্থলে এ সময় আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা ছিলেন না। সাজানো গোছানো ফাঁকা সম্মেলনস্থলে হামলাকারীরা এলোপাথারি ইঁটপাটকেল নিক্ষেপ মঞ্চ ও চেয়ার ভাংচুর শুরু করে। এ সময় একদল তরুণ ডিবিসি নিউজের ক্যামেরা কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। তাদের লাঠির আঘাতে ক্যামেরা ভেঙ্গে যায় এবং কর্তব্যরত ডিবিসির ক্যামেরাপার্সন মোহাম্মদ সুমন মিয়াকে তারা লাঠি দিয়ে মারপিট করে এবং কোমর ও পায়ে ঘুষি লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেয়। এ সময় তিনি দৌঁড়ে সরে যাওয়ার চেষ্টা করলে হামলাকারীরা তাকে ধরে ভিডিও প্রচার হলে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে চলে যায়। এদিকে সাম্মেলনে হামলার এ খবর পেয়ে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা সংগঠিত হয়ে ঘটনার প্রতিবাদে মিছিল বের করে। এই ঘটনায় শহরে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মী মাঝে ক্ষোভ ও জেলার গণমাধ্যমকর্মীদের মাঝে তীব্র প্রতিবাদ ও ক্ষোভ বিরাজ করায় শহরে উত্তেজনা দেখা যায়। তবে এ ঘটনার পরে কঠোর অবস্থান নিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করে পুলিশসহ আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা। 
এরপর বিকেলে  পৌর আওয়ামীলীগের সম্মেলনে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এমপি সহ কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক ও অন্য নেতৃবৃন্দ যোগ দেন।
সদর থানা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ মাসুদুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, মিছিলের ভিতর লুকিয়ে থাকা জামাত-শিবিরের কর্মীরা এই ভাংচুর চালিয়েছেন বলে‘ধারণা করা হচ্ছে। 
উল্লেখ্য, এ দুনিয়ার ও পরকালের আখেরী নবী, মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা:) ও  হযরত মা আয়েশা (রা) কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে গাইবান্ধা জেলা শহরে হাজার হাজার তৌহিদী জনতার প্রতিবাদী শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলে একটি সুযোগ সন্ধানী ও লেবাসধারী চক্র আওয়ামীলীগের সম্মেলনস্থলে হামলা করে সম্মেলনের ডেকোরেশন ও চেয়ার টেবিল অন্যান্য মালামাল ভাংচুর, সাংবাদিকের ক্যামেরা ভাংচুর ও ক্যামেরাম্যান সুমন মিয়াকে মারধর করার ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী করেছেন জেলার সচেতন মহল।

About parinews