Breaking News
Home / জেলা সংবাদ / গোবিন্দগঞ্জের নিহত বিজিবি সদস্য রুবেলের পরিবারের পাশে বিজিবি প্রধান মো: সাফিনুল ইসলাম

গোবিন্দগঞ্জের নিহত বিজিবি সদস্য রুবেলের পরিবারের পাশে বিজিবি প্রধান মো: সাফিনুল ইসলাম

গাইবান্ধা ঃ তৃতীয় ধাপের তফসিল ভুক্ত নীলফামারীর গাড়ামারা ইউপি নির্বাচনের ফলাফল ঘোষনা শেষে জাতীয় পার্টির পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মারুফ হোসেনের সমর্থকদের হামলায় নির্বাচনী দায়িত্ব পালনকালে নিহত বিজিবির সদস্য রুবেল মিয়ার নিজ জন্ম স্থান গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার গ্রামে বাড়ীতে চলছে শোকের মাতন। স্বজন, পাড়া, প্রতিবেশীসহ জেলার সর্বস্তরের মানুষ তাহার অকাল মৃত্যুতে শোকাহত। এ ঘটনার তিন দিনেও গ্রেফতার হয়নি মুল আসামীরা । এ ঘটনাটি নেক্কার জনক দাবী করে দোষীদের অচিরেই গ্রেফতারসহ পরিবারটিকে সর্বিক সহযোগীতার কথা জানালেন বিজিবি প্রধান মেজর জেনারেল মো: সাফিনুল ইসলাম । গাইবান্ধা জেলার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়নের বাইগুনী গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা বৃদ্ধ বাবা-মা, স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে নিহত বিজিবি সদস্য রুবেলের পরিবার। নিহত বিজিবি সদস্যের পরিবারকে সমবেদনা জ্ঞাপনকালে এমনটাই দাবী করেন বিজিবি প্রধান।

গত ২৮ নভেম্বর রবিবার নীলফামারীতে ইউনিয়ন পরিষদ সির্বাচন শেষে নির্বাচনী সহিংসতায় বিজিবি সদস্যের রুবেলের অকাল মৃত্য কেউ মানতে পারছেনা। এক মাত্র উপার্জন কারী ব্যক্তিকে হাড়িয়ে বাকরুদ্ধ পরিবার ও স্বজনরা। তারা বলেন,

ভক্সপপ- স্ত্রী ও স্বজনরা

দায়িত্বরত অবস্থায় এমন শহিদী মৃত্যুর ঘটনায় শোকের ছাড়া নেমেছে এলাকা জুড়ে । নিহতের কয়েকদিন পেড়িয়ে গেলেও মুল আসামীরা এখনো ধরাছোয়ার বাহিরে। এমন অবস্থায় দোষীদেরর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসির। তারা জানান,

ভক্সপপ- এলাকাবাসী

এদিকে এ ঘটনার ৩ দিন পর গতকাল বুধবার দুপুরে ঢাকা থেকে হেলিকাপ্টার যোগে গেবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারায় আসেন বিজিবির প্রধান মেজর জেনারেল মো: সাফিনুল ইসলাম । এর পরে নিহত বিজিবের সদসের বাড়িতে যান বিজিবির প্রধান। সেখানে নিহত বিজিবি সদস্যের কবর জিয়ারত করেন তিনি । বিজিবির প্রধানকে দেখে পরিবারের সদস্যরা কান্নায় ভেঙ্গে পরেন তাদের আহাজারিতে আকাশ বাতাস একাকার হয়ে হৃদয়বিদারক দৃশ্যে উপনত হয়। শোকাহত রুবেলের পরিবারকে সবধরনের সহযোগীতার আশ্বাস দিয়ে । এসময় বিজিবি প্রধান মেজর জেনারেল মো: সাফিনুল ইসলাম বলেন, “রুবল নিহতের ঘটনা মর্মান্তিক । এই ঘটায় দোষীদের দ্রুত গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে । আশা করি খুব দ্রুত ন্যায় বিচার পাওয়া যাবে ।” শোকাহত পরিবার কে সমবেদনা ও আর্থিক সহায়তা দেওয়ার পরে তিনি জয়পুরহাট বিজি ক্যাম্পের উদ্দেশ্যে রওনা করেন।এর আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন,

সট- মেজর জেনারেল মো: সাফিনুল ইসলাম, প্রধান, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ ।

পে অফ-
গত ২০০৩ সালের ডিসেম্বরের বিজিবিতে যোগদান করেন রুবেল । নীলফামারী ৫৬ বিজিবির ল্যান্স নায়েক হিসাবে কর্মরত ছিলেন । ২৮ নভেম্বর নীলফামারীর গাড়ামারা ইউপি নির্বাচনের ফলাফল ঘোষনা শেষে জাতীয় পার্টিও পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী মারুফ হোসেনের সমর্থকদের হামলায় নিহত হন তিনি।

About parinews

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*