Breaking News
Home / জেলা সংবাদ / গোবিন্দগঞ্জে আধিপত্য নিয়ে বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুর

গোবিন্দগঞ্জে আধিপত্য নিয়ে বসতবাড়িতে হামলা ও ভাংচুর

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃগাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে বসতবাড়িতে হামলা, ভাংচুর ও মারপিটের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ২টার দিকে পৌরশহরের চক গোবিন্দ (ব্রীজপাড়া) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এতে নারী সহ অন্তত চারজন আহত হয়েছেন। 
 স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। আহতরা হলেন জহুরা বেগম (৬৫), রাজ (৩৫), জয়নাল (৪০, রইচ উদ্দিন (৭০)। জানা গেছে, গোবিন্দগঞ্জ পৌরশহরের চক গোবিন্দ (ব্রীজপাড়া) গ্রামের রায়হান সহ কয়েকজন ছেলে হাট ইজারদারের কাছ থেকে পৌর মাছ বাজার দেখভালের দায়িত্ব নেয়। কিন্ত রায়হানসহ অন্যদের মাছ বাজার ছেড়ে যাওয়ার হুমকী দেয় কাইয়ুম। এ সময় কাইয়ুমসহ তার লোকজনের সঙ্গে রায়হানের লোকজনের বাকবিতন্ডা হয়। এরই জেরে বৃহস্পতিবার রাত ২টার দিকে কাইয়ুম ও তার লোকজন দেশীয় অস্ত্র হাতে চক গোবিন্দ (ব্রীজপাড়া) গ্রামে রায়হান ও মঞ্জুর মিয়ার বসতবাড়িসহ কয়েকটি বাড়ীতে হামলা চালায়। হামলা চালিয়ে বতসবাড়ী ভাংচুর সহ মঞ্জু মিয়ার সিএনজি ভাংচুর করে তারা। এতে প্রায় ৭ থেকে ৮ লাখ টাকার ক্ষতি করে হামলাকারীরা। এ সময় বাঁধা দিতে গেলে রায়হানের মা জহুরা বেগমসহ কয়েকজনকে মারপিট করা হয়। স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করে। এ বিষয়ে  রায়হানের পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যক্তি জানান, দীর্ঘদিন ধরে মাছ বাজারটি কাইয়ুম তার নিয়ন্ত্রণে রেখেছিল। বর্তমানে অন্য লোক ইজারা নিয়েছে। মাছ বাজারটি তার হাতছাড়া হওয়ায় তিনি এমন কান্ড ঘটিয়েছেন।  চক গোবিন্দ (ব্রীজপাড়া) গ্রামের মঞ্জু মিয়া বলেন, ঘটনা সম্পর্কে আমি কিছুই জানিনা অথচ কাইয়ুমসহ তার লোকজন এসে বসতবাড়ি ও দোকানে হামলা সহ একমাত্র উপার্জনক্ষম সিএনজিটি ভাংচুর করে। আমার কি অপরাধ ছিল ? অভিযোগ অস্বীকার করে কাইয়ুম সরকার বলেন, গতবার আমরা মাছ বাজার ইজারা নিয়েছিলাম। এবারেও আমরা মাছ বাজার ইজারা নিয়েছিল। কিন্তু সেখানে অন্যরা ইজারার টাকা কালেশন করেছিল। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছিল। এরই মধ্যে তারা পরিকল্পিতভাবে আমার লোকজনকে মারপিটসহ ছুরিকাঘাত করে। এতে আমাদের কয়েকজন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছে। তারা নিজেরা বাড়িতে ভাংচুর করে আমাদের ওপর দোষ চাপাচ্ছে। গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি ইজার উদ্দিন বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, মাছ বাজারকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মধ্যে  মারামাপিটের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় কাইয়ুম সরকার ও  রায়হান বাদী হয়ে পৃথক দুটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

About parinews