Breaking News
Home / জেলা সংবাদ / ফুলের সৌরভে সুবাশিত পলাশবাড়ী থানা ভবন।। পুলিশী সেবায় প্রসংশিত অফিসার ইনচার্জ মাসুদ রানা

ফুলের সৌরভে সুবাশিত পলাশবাড়ী থানা ভবন।। পুলিশী সেবায় প্রসংশিত অফিসার ইনচার্জ মাসুদ রানা

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল গাইবান্ধাঃমুজিব বর্ষের অঙ্গিকার পুলিশ হবে জনতার।সেবাই পুলিশের ধর্ম। থানায় জিডি করতে কোন টাকা লাগেনা। খামে বন্দি চিঠি কিংবা প্যানায় ছাপানো কথা নয়। এই সব কথা  গুলোকে বাস্তবে পরিনত করছেন পলাশবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মাসুদ রানা। 

তিনি যোগদানের পর থেকে পাল্টে গেছে পুলিশী সেবার ধরন। এমনকি পাল্টে গেছে গোটা থানা চত্বরের দৃশ্য।গোটা ভবন এখন ফুলের সৌরভে সুবাশিত হচ্ছে। থানা ভবনের চারপাশে লাগানো হয়েছে বিভিন্ন প্রজাতির ফুল গাছ।এরমধ্যে রয়েছে গোলাপ,জবা গেন্দা।থানায় ঢুকতেই মনে হবে কোন পার্কে এসেছি।একটু এগোতেই চোখে পড়বে নবনির্মিত অপরুপ সৌন্দর্য সম্বলিত গোলচত্বর। যার নাম করন করা হয়েছে পলাশী।এখানে বসলে মুহুর্তে মন হারিয়ে যাবে দুর কোন অজানায়।
পুলিশি সেবার মান নিয়ে গত কয়েক দিনের অনুসন্ধানে দেখা যায় থানায় আগত সেবা প্রার্থীদের সেবার মান অনেকটা বেড়েছে।সেবা নিতে এসে কেউ হয়রানির স্বীকার হচ্ছে না।কথা হয় কয়েকজন সেবা প্রত্যাশীর সাথে।
সেবা প্রত্যাশী নুনিয়াগাড়ী গ্রামের আমিনুল ইসলাম বলেন জমিজমা সংক্রান্ত একটি অভিযোগ করেছিলাম ওসি সাহেব যে আইনী সেবা দিয়েছেন এতে আমি খুশি।
হরিনমারী গ্রামের কামরুল ইসলাম বলেন অন্যায় ভাবে একজন আমার জমি দখল করেছিলো আমি থানায় অভিযোগ দায়ের করার সাথে সাথে প্রতিকার পেয়েছি।সত্যি ওসি সাহেব একজন ভালো মানুষ।
কলেজ ছাত্র আযম বলেন আমার সার্টিফিকেট হারিয়ে গিয়েছে থানায় এসেছিলাম ডিজি করতে আমার কোন টাকা লাগেনি।ডিউটি অফিসার টাকা ছারাই আমার জিডি করে দিয়েছেন।
এস আই সুলতান বলেন আমরা একজন ভালো অফিসার পেয়েছি।স্যার যতেষ্ঠ ভালো মানুষ।অন্যায়ের সাথে আপোষহীন একজন মানুষ। এমন অফিসারের সাথে কাজ করা গর্বের।
এক প্রশ্নের জবাবে অফিসার ইনচার্জ মাসুদ রানা বলেন, আমি পুলিশ হলেও তো একজন মানুষ ৷ মানুষ হিসেবেই সবার মাঝে থাকতে চাই ৷ আমি এ থানার প্রত্যেক শ্রেণী-পেশার মানুষের ওসি ৷ আমি সার্বজনীন ৷ তাই কর্ম এলাকায় সকলের ভালবাসা নিয়েই দায়িত্বপালনের মধ্য দিয়ে সেবা করে যেতে চাই ৷

About parinews