Breaking News
Home / খেলাধুলা / বিদেশি কোচের বেতন মাসে ১২/১৫ লাখ টাকা আর দেশি কোচ না খেয়ে আছে: মাশরাফী

বিদেশি কোচের বেতন মাসে ১২/১৫ লাখ টাকা আর দেশি কোচ না খেয়ে আছে: মাশরাফী

মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। ছবি: সংগৃহীত

ক্রিকেট

বাংলাদেশ ক্রিকেটে কোচ নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে সরব হয়েছেন সাবেক টাইগার অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা। তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লিখেছেন, আমাদের দেশের ক্রিকেট নিয়ে অনেক এক্সপেরিমেন্ট করে বিদেশি কোচরা নিজেদের অভিজ্ঞতা বাড়িয়েছে, নিজেদের প্রোফাইলও ভারি করেছে মাঝখান দিয়ে। বেতন নিয়েছে মাসে ১২-১৫ লাখ টাকা আর আমাদের কোচগুলো না খেয়ে মরে।

টাইগারদের সাবেক অধিনায়ক মাশরাফী দেশি ও বিদেশি কোচদের প্রতি আচরণের বৈষম্যকে তুলে ধরে বলেন, এক পর্যায়ে বিদেশি কোচেরা নিজেদের দেশে, না হলে আইপিএল বা আরও ভালো কোনো অফার পেয়ে চলে যাবে কারণ এতো দিনে সে আমাদের দেশের ক্রিকেট নিয়ে অনেক এক্সপেরিমেন্ট করে নিজের অভিজ্ঞতা বাড়ানোর পাশাপাশি বেতন নিয়েছে মাসে ১২-১৫ লাখ টাকা। অন্যদিকে আমাদের কোচেরা না খেয়ে মরে। গালিও দেখি আমাদের কোচরাই হজম করে। আর পরে উনারা চলে গেলে আমরা পড়ি বিপদে। আবার নতুন কোচ, নতুন পরীক্ষা, নতুন দাবি মেটানো। এভাবেই চলছে বাংলাদেশে কোচদের যাওয়া আসা।

মাশরাফী আরও লেখেন, সব সময় দেখেছি প্রত্যেক কোচ তার নিজস্ব একজন বা দুইজন প্রিয় খেলোয়াড় বানিয়ে নেয়। সে ব্যাপারে পরবর্তীতে সিলেক্টর, ক্যাপ্টেন বা অন্য কেউ তাকে আর কিছুই বুঝাতে পারে না বরং সম্পর্কগুলো জটিল হতে থাকে। আর ঐ পছন্দের জন্য সে আবার দুইজনকে এমন অপছন্দ করা শুরু করে যে তাদের আর দেখতেই পারে না! এক পর্যায়ে এমন জেদ শুরু করে যে, প্রয়োজনে চাকরি ছেড়ে দিব, এমন কথা প্রকাশ্যেও শুনেছি কয়েকবার কোচের মুখে।

মাশরাফী এরপর লিখেন, কোচকে বলা হয় ফাদার অফ দ্য সাইড। সে সবাইকে দেখে রাখবে, প্রয়োজনে কঠোর হবে। আবার দলের স্বার্থে যাকে প্রয়োজন তাকে ব্যবহার করবে। তার সব কিছুই হতে হবে পজেটিভ। কারও প্রতি কঠোর, কারও প্রতি নমনীয় এটা এক রকমের বৈষম্যতে রূপ নেয় আমাদের দেশে। যা গোছানো দলকে অগোছালো করে ফেলে।

About parinews

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*