Breaking News
Home / জাতীয় / সংস্কারে প্রাণ ফিরে পাচ্ছে গোবিন্দগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রধান সড়ক

সংস্কারে প্রাণ ফিরে পাচ্ছে গোবিন্দগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রধান সড়ক

ছাদেকুল ইসলাম রুবেল,গাইবান্ধাঃআসছে ১৮ জুন শনিবার গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনকে কেন্দ্র কপাল খুলেছে গোবিন্দগঞ্জ সরকারি কলেজের প্রধান সড়কের। পৌরভবনের সামনের বটতলী থেকে গোবিন্দগঞ্জ সরকারি কলেজ পর্যন্ত সড়কটি প্রায় দেড় দশক ধরে যান চলাচলের অনুপযোগী ছিল। ইট-পাথর আর পীচের নিদারুণ অবস্থায় শত সহস্র খানাখন্দের সড়কটি আজ সংস্কার হচ্ছে। ইতিমধ্যে পৌর প্রকল্প গ্রহণ করায় এটি দীর্ঘস্থায়ী এবং দৃষ্টিনন্দন রূপে আত্মপ্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে।

জানা যায়, পৌরশহরের বটতলী থেকে সরকারি কলেজ রোডটি ঠিক কতদিন আগে ইট-পাথর আর পিচে সংস্কার হয়েছিল সঠিকভাবে তা কেউ বলতে পারেন না। সে অবস্থা থেকে এবার উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে এটি সংস্কার হচ্ছে। তবে চলাচলের উপযোগী করা মাত্র। যেখানে খানাখন্দগুলো সমান করা হবে শুধু। 
যুগের পর যুগ এ সড়কটি ব্যবহারকারীদের অনেকেই জানান, একসময় গোবিন্দগঞ্জ শহরের সাথে শিবপুর ইউনিয়নের সরদারহাট এলাকার জনসাধারণ এই সড়কটি ব্যবহার করত। দীর্ঘদিন সংস্কারহীন থাকায় বাধ্য হয়ে অটোভ্যান ও সিএনজি চালকরা এই সড়কটি পতিত হিসেবে নতুন সড়ক দিয়ে ঘুরে চলাচল শুরু করে। ফলে শুধু কলেজগামী শিক্ষার্থীরাই এটি ব্যবহার করতে থাকে। সড়কটি সংস্কারে সুবিধাভোগীরা বেশ খুশি।

সম্প্রতি আওয়ামী লীগের সম্মেলন উপলক্ষে  গাইবান্ধা-৪ গোবিন্দগঞ্জ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব প্রকৌশলী মনোয়ার হোসেন চৌধুরী ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল লতিফ প্রধানের নির্দেশে ব্যক্তি  উদ্যোগে সড়কটির সংস্কার কাজ করা সমাজসেবক ও ঠিকাদার সৈয়দ তোফায়েল আহমেদ এলিন জানান, প্রায় ৭০০ মিটার দৈর্ঘ্যের সড়কটি দেড় যুগ ধরে সংস্কার না হওয়ায় শিক্ষার্থী, সাধারণ পথচারীরা সীমাহীন দুর্ভোগ রয়েছে। ক্ষুদ্র যানবাহন চালকরা ভুলেও এ সড়কে ভাড়ায় আসেন না। বর্তমানে ইট ফেলে তা বুলডোজার দিয়ে চাপ দিয়ে চলাচলের উপযোগী করে দেওয়ায় কিছুটা হলেও সকলের দুর্ভোগ কমবে।
গোবিন্দগঞ্জ পৌরসভার বর্তমান মেয়র মুকিতুর রহমান জানান, আমি সবেমাত্র দায়িত্ব নিয়েছি। অনেক আগেই সড়কটি সংস্কার হওয়ার কথা থাকলেও তা হয়নি। দায়িত্ব গ্রহণের পর সড়কটি দৃষ্টিনন্দন করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। অচিরেই সড়কটি সংস্কার করে দৃষ্টিনন্দন করা হবে ইনশাআল্লাহ।

About parinews